1. admin@sahas24bd.com : sahas24bd : Ahsan Ullah
[১] জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ১১ শতাংশ - sahas24bd
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:২৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
শিক্ষার্থী আদনান তাসিন হত্যাকাণ্ডের বিচারহিনতার ৩ বছর ভাইরাল হয়নি, তাই বিচার পাইনা [১] ‘নিজের বাবা দু’বছর ধরে শারীরিক নির্যাতন করেছে’ [১] স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা ও সভাপতির বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্য, দূর্নীতির অভিযোগ [১] বাংলাদেশের সব নগরিক পাবে পেনশন সুবিধা, সংসদে বিল পাস [১] কোটালীপাড়ায় বইছে পৌরসভা নির্বাচনের হাওয়া [১] গোপালগঞ্জে বসেছে সরস্বতী প্রতিমার হাট [১] টুঙ্গিপাড়ায় স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে কৃষি ঋণ বিতরণ [১] টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিতে জার্মান আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা [১] সন্তানের অভিভাবক হিসেবে মাকেও স্বীকৃতি দিলেন হাইকোর্ট [১] গোপালগঞ্জে নতুন বই কেজি দরে বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক [১] স্বতন্ত্র মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার দাবিতে গোপালগঞ্জে শিক্ষকদের মানববন্ধন

[১] জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ১১ শতাংশ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ১০ বার পঠিত

Tags:

[২] মূল্যস্ফীতি ডাবল ডিজিট পার করেনি সরকার দাবি করলেও কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) বলছে বছরের ব্যবধানে রাজধানীতে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ১১ ভাগ। এরমধ্যে জুলাই মাসে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল সর্বোচ্চ ১৮ দশমিক ৬ শতাংশ।

[৩] পণ্য ও সেবার মূল্যবিষয়ক প্রতিবেদন-২০২২ প্রকাশ উপলক্ষে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলন শনিবার (২১ জানুয়ারি) এ তথ্য জানায় ক্যাব।

[৪] ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমানের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের (বিআইআইএসএস) গবেষণা পরিচালক ড. মাহফুজ কবীর।

[৫] এতে বলা হয়, ঢাকায় গত বছর বার্ষিক গড় মূল্যস্ফীতি ছিল ১১ দশমিক শূণ্য ৮ শতাংশ, তবে সবচেয়ে বেশি মূল্যস্ফীতি ছিল খাদ্য-বহির্ভূত খাতে ১২ দশমিক ৩২ শতাংশ। খাদ্যে এটি ছিল ১০ দশমিক শূণ্য ৩ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি মূল্যস্ফীতি বেড়েছে চাল, আটা, ডাল, বেকারি পণ্য ও চিনির কারনে। এছাড়া মাছ, ডিম, দেশি মুরগি, ভোজ্যতেল, আমদানিকৃত ফল, চা ও কফি, স্থানীয় ও আমদানিকৃত দুধ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার সামগ্রী, ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যসামগ্রী এবং পরিবহন খরচ অতিমাত্রায় বেড়েছে।

[৬] প্রবন্ধে বলা হয়, গত বছর নিম্নআয়ের জনগোষ্ঠীর ওপর গড় মূল্যস্ফীতির চাপ ছিল ৯ দশমিক ১৩ শতাংশ যা ‘সাধারণ’ পরিবারের তুলনায় কম। নিম্নআয়ের মানুষের ক্ষেত্রে বার্ষিক খাদ্য-বহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল ১০ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং খাদ্য মূল্যস্ফীতি ছিল ৭ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

[৭] গত বছরের জানুয়ারির তুলনায় ফেব্রুয়ারি থেকে ‘সাধারণ’ মূল্যস্ফীতি বাড়তে শুরু করে। মে মাসে কিছুটা কমার পর তা আবার জুন থেকে বাড়তে শুরু করে।

[৮] মে মাসে খাদ্য মূল্যস্ফীতি জানুয়ারির তুলনায় ৭ দশমিক ২৯ শতাংশে পৌঁছেছিল। এরপর জুনে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি দুই অঙ্কে পৌঁছে হয় ১১ দশমিক ২৫ শতাংশ, ওই মাসে সামগ্রিক মূল্যস্ফীতি ছিল ১০ দশমিক ৪ শতাংশ। জুলাই মাসে খাদ্যবহির্ভূত মূল্যস্ফীতি ছিল সর্বোচ্চ ১৮ দশমিক ৬ শতাংশ।

[৯] মাহফুজ কবীর বলেন, মূলত জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার পর হঠাৎ করে আগস্টে মূল্যস্ফীতি বেড়ে যায়। তবে ডিসেম্বরে কিছুটা কমে আসে। প্রধানত মৌসুমি সবজির সহজলভ্যতা, আমন ধানের বাম্পার ফলন এবং মাছ-মাংসের দাম কমে যাওয়ায় ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতি কিছুটা কমে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved sahas24bd© 2019-2022
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting